Breaking News
Home / Uncategorized / অন্যায়ের প্রতিবাদ করায় কুতুবউদ্দিনের উপর হামলা: মানববন্ধনে বক্তারা

অন্যায়ের প্রতিবাদ করায় কুতুবউদ্দিনের উপর হামলা: মানববন্ধনে বক্তারা

নিজস্ব প্রতিবেদক

কুতুব উদ্দিন একজন সদালাপী, ভদ্র ও নম্র একজন শিক্ষানবীশ আইনজীবী। মেয়াদ উত্তীর্ণ একটি চিপস বিক্রির প্রতিবাদ করায় কুতুব উদ্দিনকে নির্মম ভাবে জখম করা হয়েছে। এ যেন হত্যার উদ্দেশ্যে সন্ত্রাসী স্টাইলে হামলা।

শরীয়তপুর আইনজীবী সমিতির শিক্ষানবীশ আইনজীবী কুতুব উদ্দিনের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন থেকে এ দাবি করেন বক্তারা। বৃহস্পতিবার (২৫ অক্টোবর, ২০১৮) সকালে শরীয়তপুরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা জজ আদালতের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে আইনজীবী, শিক্ষানবীশ আইনজীবী ও জেড এইচ সিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এতে অংশ নেন।

এ ঘটনায় সদর উপজেলার ধানুকা গ্রামের মৃত আ.রশিদ খানের ছেলে রিন্টু খান (৪০)এর বিরুদ্ধে শরীয়তপুর চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বুধবার মামলা করেছে কুতুব উদ্দিনের বড়ভাই এডভোকেট মহিউদ্দিন মোল্লা শাহিন। অভিযুক্ত রিন্টু খানের বিরুদ্ধে আদালত গ্রেফতারী পরোয়ানা ইস্যু করেছে। ঘটনার পর থেকে রিন্টু খান পলাতক রয়েছেন।

আসামী রিন্টু খান

মামলার বিবরণ থেকে জানাযায়, গত ২৩ অক্টোবর মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার সময় সদর উপজেলার তুলাসার গ্রামের মাওলানা দলিল উদ্দিন মোল্লার ছেলে ও শরীয়তপুর আইনজীবী সমিতির শিক্ষানবীশ আইনজীবী কুতুব উদ্দিন রিন্টু খানের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মেসার্স আর কে ট্রেডার্স থেকে পটেটো চিপস কিনেন। মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখ যাচাই করে কুতুব উদ্দিন দেখতে পায় চিপসের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে। তখন চিপস ফেরত নিতে দোকানীকে অনুরোধ করে কুতুব। দোকানী চিপস ফেরত না নিয়ে অশ্রাব্য ভাষায় গালাগাল করে কুতুব উদ্দিনকে, পরে দোকানে থাকা হকিস্টিক ও চাপাতি দিয়ে বেধরক মারধর ও জখম করে। এতে কুতুব উদ্দিনের চোখ,মুখ ও পিঠ মারাত্বক ভাবে জখম হয়। কুতুব উদ্দিনকে প্রথমে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। অবস্থার কোন উন্নতি না দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক কুতুব উদ্দিনের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছেন।

মানববন্ধন থেকে জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আবু সাঈদ বলেন, একটা ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আর একটা ঘটনা ঘটে থাকে। শিক্ষানবীশ আইনজীবী কুতুব উদ্দিন অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে গিয়ে সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছে। কুতুব উদ্দিন কোন অন্যায় করে থাকলে কর্তৃপক্ষকে অবগত করতে পারত। হামলাকারী অত্যন্ত সাহসী ও জুলুমবাজ। হামলাকারীর মনে রাখা উচিৎ ছিল শিক্ষানবীশ আইনজীবীরা বিচ্ছিন্ন কেউ না। হামলাকারীর বিচার আইনের মাধ্যমেই হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন এডভোকেট সিরাজুল ইসলাম আকন, এডভোকেট মোছলেম খান, এডভোকেট ফেরদৌস মিয়া, এডভোকেট মীর শাহাবুদ্দিন উজ্জল, এডভোকেট আব্দুল আউয়াল, এডভোকেট আজিজুর রহমান রোকন, এডভোকেট রুহুল আমিন প্রমূখ।

Facebook Comments

Check Also

ইসলা‌মিক ফাউ‌ন্ডেশ‌নের ৪৪তম প্র‌তিষ্ঠা বা‌র্ষিকী উদযাপন

মাহবুব আলমঃ ইসলা‌মিক ফাউ‌ন্ডেশ‌নের ৪৪তম প্র‌তিষ্ঠা বা‌র্ষিকী উদযাপন করা হ‌য়েছে। শুক্রবার (২২ মার্চ) সকাল ৯টার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *